Main Menu

বিজয় দিবসে জেলা প্রশাসনের দিনব্যাপী কর্মসূচী

: কমান্ডো গেরিলা সামাদ : বাঙ্গালী জাতির পরাধীনতার শৃংখল থেকে মুক্তি পাওয়ার পরে ৪৭তম মহান বিজয় দিবস যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে উদযাপন উপলক্ষ্যে শরীয়তপুর জেলা প্রশাসন বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।
কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে শিক্ষার্থীদের মাঝে আবৃত্তি প্রতিযোগিতা, দেশাত্ত¡বোধক সংগীত প্রতিযোগিতা, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা,জেলা শিশু একাডেমির উদ্যোগে শিশুদের মাঝে খেলাধুলা প্রতিযোগিতা,আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠান, জেলা শিল্পকলা একাডেমি কর্তৃক ভ্রাম্যমান সংগীত পরিবেশন, সকাল ৬-৪০মিঃ ৩১ বার তোপধ্বনি,জেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জাতির পিতার প্রতিকৃতি ও শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল সাড়ে সাতটায় শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের কবর জিয়ারত, সকাল ৮.০০ টায় জেলাস্থ স্টেডিয়ামে কুচকাওয়াজ প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ সুপারের সালাম গ্রহণ, দিবসটির তাৎপর্যের এবং গুরুত্তের ওপর জেলা প্রশাসকের সংক্ষিপ্ত ভাষণ, শিক্ষার্থীদের সমাবেশ, ক্রীড়ানুষ্ঠান, জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধণা প্রদান, জাতির মঙ্গল কামনায় বিশেষ মোনাযাত, প্রার্থণা, হাসপাতাল,শিশু সদন,জেলখানায় উন্নত মানের খাবার পরিবেশন, বিনা টিকিটে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চলচ্চিত্র প্রদর্শন, মহিলাদের ক্রিড়া, কাবাডি, প্রীতি ফুটবল প্রতিযোগিতা, আলোক সজ্জা, জেলা তথ্য বিভাগ কর্তৃক উন্মুক্ত স্থানে চলচ্চিত্র প্রদর্শন, “সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে ডিজিটাল প্রযুক্তির সার্বজনীন ব্যবহার এবং মুক্তিযুদ্ধ“ শীর্ষক আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসে জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের তার বাণীতে উল্লেখ করেন, সময়ের পরিক্রমায় আবার এসেছে মহান বিজয় দিবস-আমাদের গৌরবময় অর্জনের উজ্জলতম দিন। ত্রিশ লক্ষ শহীদের আতœত্যাগ ও দুই লক্ষ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে দীর্ঘ নয় মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে আমরা অর্জন করেছি স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। এ দিবসের প্রাক্কালে গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করছি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে, যিনি একটি উপেক্ষিত, বঞ্চিত ও শোষিত জাতিকে মুক্তির চেতনায় উজ্জীবিত করে ছিনিয়ে এনেছিলেন আমাদের প্রিয় স্বাধীনতা।
মহান বিজয় দিবসের এ মাহেন্দ্রক্ষণে আপনাদের সকলকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের সাথে মহান বিজয় দিবস-২০১৮ এর তিনদিনব্যাপী কর্মসুচিকে সফল করতে সকলের উপস্থিতি ও সহযোগিতা কামনা করছি।

Facebook Comments





error: Content is protected !!