Main Menu

আসুন আগুনে পোড়া এতিম শিশু মানসুরার চিকিৎসার জন্য হাত বাড়াই

॥ আসাদ গাজী ॥ আরো দশটা শিশুর মতো সুস্থ জীবনের আশায় দারে দারে ঘুরছে শরীয়তপুরের নড়িয়ার উপজেলার পন্ডিতসার গ্রামের মানসুরা আক্তার স্নেহা (১২)ও তার পরিবার।মেয়েকে সুস্থ জিবনে ফিরিয়ে আনা ও বাচানোই তার এখন একমাএ আশা।স্নেহার পরিবারের তার মা মরজিনা বেগমের সাথে কথা বলে জানা যায়,স্নেহা ২০১৬ সালে ২৩শে জানুয়ারী ভিজা কাপড় গ্যাসের চুলার উপর শুকাতে যায়।তার পর হঠাৎ তার চিৎকার শোনা যায়।চিৎকার শোনার পর আমি আমার মেয়ের কাছে দৌরে যাই এবং যেয়ে দেখি আমার মেয়ে স্নেহার শরীরে পরা জামা কাপরে আগুন জ্বলছে।তারপর আমি অনেক চেষ্টা করার পর আগুন নিভাই।স্নেনেহার মা আরো বলেন,আমার স্বামী ২০১৪ সালে আজ থেকে তিন বছর পূর্বে হার্টএটাকে মারা যান।আমার এক ছেলে এক মেয়ে,সবে মাএ বড় ছেলে এসএস সি পাস করেছে।বাবা হাড়া ছেলে মেয়ে আমার,আমি টুক টাক হাতের কাজ করে অতি কষ্টে অভাবের সংসার চালাই।মাঝে সাঝে আত্বীয় স্বজনদের সহোযোগিতা পাই আর এভাবেই চলছে আমার সংসার।আমার মেয়ে মনসুরা আক্তার স্নেহা বর্তমান ন্যাশনাল আইডিয়াল পাবলিক স্কুল ডেমরা, শারুলিয়া সপ্তম শ্রেণীতে পরে।এখন স্কুলে যাওয়া ওর জন্য অসম্ভব হয়ে পরেছে।যত দিন যাইতেছে স্নেহার পুরে যাওয়া পেট থেকে বুক পযর্ন্ত খত গুলো বড় হতে চলেছে।প্রতি রাতে আমার মেয়ে স্নেহা যন্ত্রনা কাতর হয়ে কান্না কাটি করে।বার বার আমাকে প্রশ্ন করে মা আমি কবে ভালো হমু।এক পর্যায়ে স্নেহার মা মরজিনা বেগম কথা বলতে বলতে হু হু করে কেদে দিলেন।স্নেহার মা মরজিনা বেগম অভিযোগ করে বলেন বিভিন্ন হসপিটাল,ডাক্তার দেখাইছি আমি গরিব বলে আজও আমার মেয়ে সঠিক চিকিৎসা পাইনি।স্নেহার মা আরো বলেন কিছু দিন আগে আমি গ্রামের বাড়ি যাই এবং আমি আমার এক আত্বীয়ের পরামর্শে আমাদের গ্রামের চেয়াম্যান ও বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাদের কাছে যাই আমার মেয়েকে নিয়েও তাদের সাথে সরাসরি দেখা করি।তার পরও তাদের কাছ থেকে কোন প্রকার সাহায্যে সহোযোগিতা পাইনি।আমি আমার মেয়েকে বাচাতে চাই আমার মেয়ে দিনাদিন শুকিয়ে যাইতেছে।আজ আমি দেশ বাসির কাছে আমার মেয়ের শুচিকিৎসার জন্য আর্থিক সহোযোগিতা চাই।আপনাদের মাঝে যদি কোন সহৃদয়বান ব্যাক্তি আমার মেয়ের চিকিৎসা করার হাত বাড়িয়ে দেন, তাহলে হয়ত আমার স্নেহা ভালো হয়ে যাবে। মানসুরা আক্তার স্নেহার সাথে কথা হলে সে বলে,আমি ক্লাস ৭ম শ্রেণীতে পড়ি আমি স্কুলে যেতে চাই তবে এখন আর পারিছিনা।আমার রাতে ঘুমাতে কস্ট হয়,পোড়া জায়গা গুলো খুব চুলকায়, দিনে দিনে পোড়া যায়গা গুলো বড় হচ্ছে,আমি বাঁচতে চাই,আমাকে আপনারা সাহায্য করুন।প্রায় দের বছর যাবৎ অসুস্থ শিশু কন্যা মানসুরা আক্তার স্নেহা।তার চিকিৎসার জন্য কেউ সাহায্য করতে চাইলে যোগাযোগ করুন-০১৬৭৫৫৪৫০৬২।

 

Facebook Comments





error: Content is protected !!